বলুন তো, পৃথিবীর সবচেয়ে দীর্ঘতম ট্রেন রুট কোনটি? একবার উঠলে ৭ দিন পর পৌঁছবেন!

বলুন তো, পৃথিবীর সবচেয়ে দীর্ঘতম ট্রেন রুট কোনটি? একবার উঠলে ৭ দিন পর পৌঁছবেন!

Longest Train Route: এমন একটি ট্রেন রয়েছে, যেখানে একবার উঠে পড়লে পৌঁছতে সময় লাগে ৭ দিন৷ মানে দীর্ঘ এই ৭ দিন ধরে আপনাকে থাকতে হবে ট্রেনের মধ্যে৷ আর এটিই হল সবচেয়ে দীর্ঘতম ট্রেন রুট৷

ট্রেনে করে বেড়াতে যেতে কার না ভাললাগে৷ বিশেষত ট্রেনের লম্বা সফর উপভোগ করার মজাটাই যেন আলাদা৷

সবুজের মাঝখান দিয়ে যখন ছুটে চলে ট্রেন,তখন ঘণ্টার পর ঘণ্টা যে কীভাবে কেটে যায়, তা যেন টের পাওয়াই যায় না৷

তবে এই ট্রেনযাত্রা যদি দীর্ঘ সময়ের জন্য হয়, তা আবার একঘেয়েমিতে পরিণত হয়৷ আর একটানা যদি তা ৭ দিনের হয়, তাহলে কী হবে বলুন তো৷

এমন একটি ট্রেন রয়েছে, যেখানে একবার উঠে পড়লে পৌঁছতে সময় লাগে ৭ দিন৷ মানে দীর্ঘ এই ৭ দিন ধরে আপনাকে থাকতে হবে ট্রেনের মধ্যে৷ আর এটিই হল সবচেয়ে দীর্ঘতম ট্রেন রুট৷

অসমের ডিব্রুগড় থেকে তামিলনাডুর কন্যাকুমারী পর্যন্ত চলে এই ট্রেন৷ এই রুটের দূরত্ব প্রায় ৪২৩৭ কিমি৷ বিবেক এক্সপ্রেস ট্রেনটি এই রুটে চলে৷ এই রুটে যেতে তিন দিন অর্থাৎ ৭২ ঘণ্টা সময় লাগে৷ এটি বিশ্বের পঞ্চম দীর্ঘতম ট্রেন রুট

অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী সিডনিকে পার্থের সঙ্গে সংযুক্ত করেছে যে রুট তার দৈঘ্য প্রায় ৪৩৫২ কিমি৷ এই ট্রেনের রুটটি ভারত মহাসাগরের উপকূল ধরে চলে এবং প্রশান্ত মহাসাগরের উপকূলে পৌঁছে যায়৷ এটি হল বিশ্বের চতুর্থ দীর্ঘতম ট্রেন রুট৷

চিনের এই ট্রেন রুটটি শিল্প শহর সাংহাইকে লাসার সঙ্গে যুক্ত করেছে৷ ৪৩৭৩ কিমি দীর্ঘ এই পথ৷ ৪৭ ঘণ্টা সময় লাগে যেতে৷ দৈর্ঘ্যের দিক থেকে এটি বিশ্বের তৃতীয় স্থানে রয়েছে৷

ট্রান্স সাইবেরিয়ান রেলওয়ে রুট হল বিশ্বের দীর্ঘতম ট্রেন রুট৷ এই রুটটির দৈর্ঘ্য হল প্রায় ৯২৫৯ কিলোমিটার৷ যেতে সময় লাগে ৭ দিন৷ এখানে এতটাই ঠান্ডা যে, সারাবছর বরফ থাকে৷

(Feed Source: news18.com)